ছেলে মাদক মামলার আসামী শুনে স্ট্রোকে মায়ের মৃত্যু

৩৮ Views

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : :

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে অটোচালক ছেলেকে মাদক বহনের অভিযোগে আটকের পর আসামী করে জেলে পাঠানোর কথা শুনে স্ট্রোকে মায়ের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। আটক অটোচালকের নাম ছবিদুল হক (৩৫)। সে উপজেলার শিমুলবাড়ি ইউনিয়নের ফকিরপাড়া গ্রামের নজির হোসেনের ছেলে।

ছবিদুলের পরিবার জানায়, আজ(২৯ জুন) ভোরে একই গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে শাহ আলম (২৮) ঢাকায় গার্মেন্টসে কাজ করতে যাবে বলে লালমনিরহাট জেলার বড়বাড়ি বাস কাউন্টার যাওয়ার জন্য ছবিদুলের অটো ভাড়া করে।

চালের বস্তা ও ব্যাগপত্র নিয়ে রওয়ানা করেন ছবিদুল ও যাত্রী শাহআলম। শেখ হাসিনা ধরলা সেতু পার হলে অটো চেক করেন ফুলবাড়ী থানা পুলিশ।

এসময় অটোতে থাকা চালের বস্তার ভেতরে  ৫ কেজি গাঁজা পায়। পরে বস্তার মালিক শাহআলম ও অটোচালক ছবিদুলকে অটোসহ থানায় নিয়ে আসে। খবর পেয়ে ছবিদুলের স্ত্রী ফরিদা বেগম, বাবা নজির হোসেন, মা ছকিলা বেগম, শশুর ফজলু মিয়াসহ ছেলে ও মেয়ে থানায় ছুটে আসেন।

দুপুরে থানা পুলিশ ছবিদুলকে কুড়িগ্রাম জেলে পাঠালে তারা সবাই শোকে বাড়িতে ফিরতে শুরু করেন। বাড়ি ফেরার আগেই নিজ গ্রামের জোবেদ আলী ব্যাপারীর বাড়ির সামনের রাস্তায় স্ট্রোক করে মারা যান ছবিদুলের মা ছকিলা বেগম(৫২)।

ছবিদুলের স্ত্রী ফরিদা বেগম জানান, সারা গ্রামে খবর নিয়ে দেখেন আমার স্বামী কোনোদিন দুই নম্বরি ব্যবসা করে নাই। আমরা গরিব মানুষ। সংসারে আমার স্বামী ছাড়া আয় রোজগার করার আর কেউ নাই। অনেক কষ্টে কিস্তিতে অটো ক্রয় করে আমার স্বামী চালায়।

সেটা দিয়ে ছেলে মেয়ের পড়ালেখা ও কোনোরকমে সংসার চালাই। এভাবে আমার নিরাপরাধ স্বামীকে মাদক মামলায় ফাঁসানোয় শোকে আমার শাশুড়ি ও স্ট্রোক করে মারা গেল। এখন আমাদের কি হবে।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাজীব কুমার রায় বলেন, সকাল বেলা শেখ হাসিনা ধরলা ব্রীজে টহলরত পুলিশের হাতে মাদক(গাঁজা)সহ আটক হয় মাদকব্যবসায়ী শাহআলম ও তার সহযোগী অটো চালক ছবিদুল।

আজ দুপুরের দিকে তাদের কুড়িগ্রাম জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ছবিদুলের মায়ের মৃত্যুর বিষয়ে জানতে চাইলে উক্ত কর্মকর্তা জানান, মারা যাওয়ার বিষয়টি প্রাসাঙ্গিক নয়।