সিরাজদীখানে নতুন কার্পেটিং সড়কের অনিয়মের অভিযোগ

২৯ Views

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ::

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখানে নতুন কার্পেটিং সড়কের অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সিরাজদীখান-তালতলা সড়ক থেকে পূর্ব শিয়ালদী সড়ক পর্যন্ত ৭শ ৩১ মিটার সড়কটি নতুন কার্পেটিং করার জন্য এক নম্বর ইটের পরিবর্তে নিম্ন মানের তিন নাম্বার ইট ও ইটের শুরকি ব্যবহার এবং নির্ধারিত উঁচুর চাইতে প্রায় এক ফিট নিচু করে সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে বলে এলাকাবাসী জানায়।

মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় সরেজমিনে দেখা যায়,উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের পূর্ব শিয়ালদী গ্রামের নতুন কার্পেটিং কাজ শুরু হওয়ার পর থেকে নিম্ন মানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার এই সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত ভাবে পরে থাকার কারণে পূর্ব ও পশ্চিম শিয়ালদী গ্রামসহ আশপাশের বেশ কয়েকটি গ্রামে যাতায়াতে ভোগান্তি শিকার হয়েছে হাজারো মানুষের।

দীর্ঘদিন অবহেলিত অবস্থায় পরে থাকার পর জণসাধারনের ভোগান্তির ইতি টানতে সম্প্রতি ইট সলিং রাস্তাটি নতুন কার্পেটিং করার কাজ শুরু করা হয়। কাজ শুরুর পর থেকে গ্রামবাসী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ করে আসছে।

এক নম্বর ইট ও ইটের খোয়ার পরিবর্তে নিম্ন মানের ইটের শুরকি এবং মানহীন পাথরের কংক্রিট দিয়ে নতুন কার্পেটিং কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে । এছাড়া রাস্তাটির নির্ধারিত উঁচ্চতা থেকে প্রায় এক ফিট নিচু করে নির্মাণ করা হয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। এতে বর্ষা মৌসুমে সড়কটি তলিয়ে যেতে পাড়ে বলে আষঙ্কা করছে এলাকাবাসী। এছাড়াও এই রাস্তা কেন পূর্বের চাইতে নিচু করা হল জনমনে একটাই এখন প্রশ্ন?

উপজেলা এলজিইডি অফিস সূত্রে জানা যায়,নতুন সড়কটি কার্পেটিং করার জন্য ২০১৯-২০ অর্থ বছরে ৫৫লক্ষ ৪২হাজার ৭শত ৩১টাকা বরাদ্দ দেয় স্থানীয় সরকার (এলজিইডি) প্রকৌশল অধিদপ্তর।

এই কাজটি সম্পন্ন করার দায়িত্ব পান মেসার্স মোনালিসা এন্টার প্রাইজ নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এলাকাবাসী জানান, আমাদের এ রাস্তাটি বহুদিন ধরে ইট সোলিং ছিলো। এখন নতুন কার্পেটিং কাজ শুরু করেছে ঠিকাদার। কিন্তু নিম্ন মানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করছে। তবে এ সড়কটি দ্রুত নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আছে।

এবিষয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স মোনালিসা এন্টার প্রাইজের স্বত্বাধীকরী মো. বিল্লাল হোসেনের মুঠফোনে একাধিকবার কল দিলেও সে ফোন রিসিভ করেনি।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী শোয়াইব বীন আজাদ বলেন, কাজে যদি কোন অনিয়ম করে থাকে আমরা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব।#